পুরুষ ৫০ পেরোলে

পঞ্চাশ পেরোনোর পর হরমোনের তারতম্যের কারণে পুরুষের প্রস্টেট নামের গ্রন্থির কোষের সংখ্যা বৃদ্ধি হতে থাকে। একসময় গ্রন্থিটি আকারে বড় হয়ে গিয়ে তৈরি করে নানা সমস্যা। যেমন: স্বাভাবিকের চেয়ে ধীরে ধীরে প্রস্রাব হওয়া, প্রথমে খানিকটা অসুবিধা ও পরে কিছুক্ষণ ফোঁটায় ফোঁটায় প্রস্রাব হওয়া ইত্যাদি। এ ছাড়া হঠাৎ প্রস্রাব আটকে যেতে পারে। কখনো কখনো প্রস্রাবের সঙ্গে রক্তও আসতে পারে।
এমন সমস্যা দীর্ঘদিন থাকলে মূত্রথলির প্রদাহ হতে পারে, মূত্রনালি ও কিডনিতে প্রস্রাব জমে থাকার কারণে কিডনি অকেজো হয়ে যেতে পারে। তাই সমস্যা অল্প থাকতেই চিকিৎসা শুরু করা উচিত।
প্রস্টেট গ্রন্থিতে কোনো টিউমার বা ক্যানসার আছে কি না, চিকিৎসক তা প্রয়োজনীয় পরীক্ষা-নিরীক্ষার মাধ্যমে নিশ্চিত হবেন। প্রাথমিক অবস্থায় ওষুধ খেয়ে সুস্থ থাকা যায়। সন্ধ্যার পর থেকে একটু কম পানি পান করলে সমস্যাগুলো এড়ানো যায়।

সার্জারি বিভাগ, ঢাকা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল

এ বিষয়ে আরও পড়ুন   নাক ডাকা কি রোগ?