এই বসন্তে সোনামণির যত্ন

বসন্ত কি শুধুই বর্ণিল উৎসবের ঋতু? নাকি হাঁচি-কাশি আর সর্দির মতো অসুখেরও ঋতু? অনেক শিশুর মায়ের কাছেই এই সময়টা ভারী উদ্বেগের। কেননা এই বসন্তে তাঁদের সন্তানের নাক বন্ধ, চোখ দিয়ে পানি পড়া, চুলকানি আর অনবরত হাঁচি প্রায় অবধারিত।
শিশুদের নিয়ে হয়তো পার্কে, বাগানে বা কোনো অবকাশকেন্দ্রে বেড়াতে গেলেন—অমনি শুরু হয়ে গেল হাঁচি-কাশির মতো অসুখ। তবে সব শিশুর যে এমন সমস্যা হবে, তা নয়। যারা অতি সংবেদনশীল বা যাদের পরিবারে অন্যদের অ্যালার্জি, হাঁপানি বা চুলকানির সমস্যা আছে, সাধারণত তাদেরই এমন সমস্যায় আক্রান্ত হতে দেখা যায়।
অ্যালার্জি প্রতিরোধে করণীয়:
* যেসব শিশুর অ্যালার্জি আছে, তাদের ফুল থেকে দূরে রাখুন।
* বাইরে বেরোনোর সময় নাক-মুখ ঢেকে রাখার মাস্ক পরিয়ে নিন।
* হাঁচি দেওয়ার সময় নাক-মুখ ঢেকে রাখতে হবে।
* বাইরে থেকে ফিরেই সাবান দিয়ে নিয়মিত হাত ধুয়ে নিতে হবে।
* নিয়মিত গোসল ও পরিষ্কার জামা-কাপড় পরতে হবে।

এই সময় আবহাওয়ার পরিবর্তনের জন্য ভাইরাস জ্বর হয়। এ রকম হলে প্রচুর পানি পান করতে হবে। ছোট শিশুদের বারবার বুকের দুধ দিন। এতে কোনো অ্যান্টিবায়েটিক লাগে না। তবে শিশু অতিমাত্রায় জ্বরে আক্রান্ত হলে, বেশি বমি করলে বা খেতে না পারলে অথবা অজ্ঞান হয়ে গেলে হাসপাতালে নিন।
বসন্ত এসেছে বলে শীত কিন্তু একবারে বিদায় নেয়নি, রাতে ও ভোরে ঠিকই ঠান্ডা পড়ে। তাই ঘুমানোর সময় যেন শিশুরা কাঁথা গায়ে দেয় আর ভোরে স্কুলে যাওয়ার সময় হালকা গরম কাপড় পরে নেয়, তা নিশ্চিত করুন।

ডা. আবু সাঈদ : শিশু বিভাগ, ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল

এ বিষয়ে আরও পড়ুন   জেনে নিন ব্যায়ামের সঠিক সময়