“ডগি স্টাইল সেক্স” সঠিকভাবে করার পদ্ধতি

“ডগি স্টাইল সেক্স” বিষয়টি নিয়ে ভয় পাবার কিচ্ছু নেই। ডগি স্টাইল সেক্স বলতে এটাকেই বোঝায় যে পুরুষটি পেছন দিক থেকে নারীর দেশে পুরুষাঙ্গ প্রবেশ করাবেন। অনেকেই “অ্যানাল সেক্স” বা নিতম্বে (মূলত মলদ্বারে) পুরুষাঙ্গ প্রবেশ করিয়ে যৌন মিলনের সাথে “ডগি স্টাইল সেক্স”কে গুলিয়ে ফেলেন। তবে এটা জরুরি নয় যে ডগি স্টাইল সেক্স করলেই অ্যানাল সেক্স হতে হবে বা পুরুষাঙ্গটি মলদ্বারে প্রবেশ করাতে হবে। পেছন থেকেও নারীর যোনিতে পুরুষাঙ্গ প্রবেশ করানো যায় আর মূলত সেটাই হচ্ছে ডগি স্টাইল সেক্স। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য যে “অ্যানাল সেক্স” সাধারণত নারীদের জন্য কষ্টদায়ক। প্রায় কোন নারীই এই ব্যাপারটি উপভোগ করেন না। এবং এতে ব্যথা পাবারও সমূহ সম্ভাবনা থাকে। কেবল পর্ণ ভিডিওতেই এই ব্যাপারটির আধিপত্য দেখা যায়।

ডগি স্টাইল সেক্স কীভাবে করেঃ

বিষয়টি আহামরি কঠিন কিছু নয়। অনেক নারীই এটা বলে থাকেন যে ডগি স্টাইল সেক্সে তাঁদের অরগাজম তাড়াতাড়ি আসে। এটা করার জন্য নারী আর আর পুরুষ মুখোমুখি অবস্থায়
যৌনমিলন না করে নারীটি পেছন ফেরেন এবং পুরুষ পেছন থেকে যোনিতে পুরুষাঙ্গ প্রবেশ করিয়ে থাকেন। এক্ষেত্রে নারী হাঁটু ভাঁজ করে নিতম্ব উঁচু করে বসতে পারেন, এতে পুরুষটির পুরুষাঙ্গ প্রবেশ করাতে সুবিধা হয়। আবার নারী
দাঁড়িয়ে থাকা অবস্থাতেও সামনে ঝুঁকে বা দেয়ালে ভর দিয়ে নিতম্ব উঁচু করে ধরতে পারেন, সেভাবেই ডগি স্টাইল করা সম্ভব। নিজেদের সুবিধা মত যে কোন পজিশনেই ডগি স্টাইল সেক্স করা সম্ভব।

ডগি স্টাইল সেক্সে যে ব্যাপারগুলো মনে রাখবেনঃ

☞ নারীর অনুমতি না নিয়ে পুরুষ অ্যানাল সেক্স করার চেষ্টা করবেন না বা মলদ্বারে প্রবেশের চেষ্টা করবেন না। যোনিতে পুরুষাঙ্গের প্রবেশ যতটা আনন্দময়, মলদ্বারে ততটাই কষ্টকর বেশিরভাগ নারীর ক্ষেত্রে। কেবল তখনই অ্যানাল সেক্সের দিকেজান, যখন সঙ্গিনীও সেটি চায়।
☞ ডগি স্টাইল সেক্সে নারীকে যেহেতু হাঁটু ও হাতের ওপরে ভর দিতে হয় অনেকটাই, তাই বিছানার ওপরে এটা করুন বা হাত-পায়ের নিচে পর্যাপ্ত সাপোর্ট দিন।
☞ ডগি স্টাইল সেক্সের ক্ষেত্রে সোফা একটি চমৎকার উপাদান হতে পারে।
☞ পুরুষেরা ডগি স্টাইল সেক্স ভালোবাসেন, যৌনমিলনের দৃশ্যটিও তাঁদের উত্তেজনা বাড়াতে সহায়ক হয়। অন্যদিকে নারীরাও এই বিষয়টি পছন্দ করেন। এভাবে নারীর অনেক গভীরে প্রবেশ করা সম্ভব হয় পুরুষের জন্য।
☞ পুরুষেরা ডগি স্টাইল সেক্সের সময় বেশি চাপ প্রয়োগ করবেন না। জেনে ও বুঝে নিন সঙ্গিনীর কোন সমস্যা হচ্ছে কিনা। এই অবস্থানে পুরুষের পক্ষে সবচাইতে বেশি প্রেসার দেয়া সম্ভব হয়। তবে অনেক নারীর জন্য সেটা কষ্টেরও হতে পারে।
☞ ডগি স্টাইল সেক্সে আরও একটি ইন্টারেস্টিং পজিশন হতে পারে বালিশের ব্যবহারে। নারী উপুড় হয়ে শুয়ে পড়বে, নিতম্বের নিচে দেয়া হবে একটি বালিশ। পুরুষ তারপর নারীর ওপরে শুয়ে পেছন থেকে যোনিতে প্রবেশ করবেন। এই পজিশনটিও নারীরা খুব পছন্দ করেন। তবে পুরুষের ওজন বেশি হলে এটা না করাই ভালো।
☞ এই স্টাইলে সেক্স করার সময় খুব দ্রুত করবেন না। বরং আস্তে আস্তে করুন, এতে বিষয়টি খুবই আনন্দময় হয়ে উঠবে। নারীর নিতম্ব পুরুষ নিজের হাতে ধরে থাকলে মুভমেনট এর ওপরে নিয়ন্ত্রণ করাটা সহজ হয়। আস্তে আস্তে গতি বাড়াতে থাকলে আনন্দ পাওয়া যাবে অনেক বেশি।
☞ এই পজিশনে সেক্স করার সময় পুরুষেরা সঙ্গিনীকে আদর করতে ভুলবেন না যেন। তার স্তনে আস্তে আস্তে ম্যাসাজ করুন। উত্তেজনে বেড়ে যাবে বহুগুণে।