যে কারনে নারীরা পূর্ণাঙ্গ যৌন তৃপ্তি থেকে বঞ্চিত হয়

পুরুষের তুলনায় যৌন জীবনে মহিলাদের অসুখী হওয়ার হার অনেক বেশি। এমনকি নিজের ভালোবাসার পুরুষটির সঙ্গেও যৌন জীবন নিয়ে খুশী নন অনেক মহিলাই। মুখে প্রকাশ না করলেও মনের মধ্যে ক্ষোভ নিয়ে জীবন যাপন করেন, মুখ ফুটে অনেকে বলতে পারেন না যৌন জীবনে নিজের অসুবিধার কথা। কিন্তু এরকম কেন? কেন অনেক নারী যৌন জীবনে অসুখী ও অতৃপ্ত?

ভুল ধারণা এবং অজ্ঞতা যৌন জীবনে অসুখী রয়ে যাওয়ার মূল কারণ। সঙ্গে পর্যাপ্ত যৌন শিক্ষার অভাব। যৌনতা যে কেবল সন্তান উৎপাদনের মাধ্যম নয়। নারী এবং পুরুষ উভয়ের জন্য একটি আনন্দের ব্যাপার। এই বিষয়টি সম্পর্কে আজও অজ্ঞ প্রচুর নারী। কী করতে হবে কিংবা কীভাবে করলে আরও আনন্দময় হয়ে উঠবে যৌন মিলন। সেটা জানা নেই বলে তারা রয়ে যান অসুখী ও অতৃপ্ত।

১. লজ্জা এবং সংকোচ

অনেক নারী মনে করেন যে মেয়েদের যৌনতার কথা বলতে নেই, কিংবা মেয়েদের যৌনতার বিষয়টি নিয়ে কথা বলা কিংবা যৌন চাহিদা প্রদর্শন করার বিষয়টি খুবই লজ্জার। তাই মনের ইচ্ছা মনে চেপে রাখেন তারা।

২. নিজেকে বুঝতে না পারা

আসলে কী চাইছেন? তার শরীর কোন ডাকে কীভাবে সাড়া দিচ্ছে। কোন অঙ্গগুলো যৌনতার ক্ষেত্রে স্পর্শকাতর কিংবা নিজের শরীরের চাহিদাগুলো কী কী ইত্যাদি বিষয়ে অজ্ঞতা এবং বুঝতে না পারাও যৌন জীবনে অসুখী হবার একটি বড় কারণ। জেনে নিন নারীর যৌন অনিহার কারন ও সমাধানের উপায় ।

৩. পুরুষ সঙ্গীর স্বার্থপরতা

বেশির ভাগ পুরুষ নিজের সঙ্গিনীর যৌন চাহিদা পূরণের ব্যাপারে মনযোগী নন। বরং নিজের চাহিদা মিটে গেলে তারা স্বার্থপরের মত আচরণ করতে শুরু করেন. এটা নারীদের অতৃপ্ত থাকার একটি বড় কারণ।

৪. কি চাই সেটা বলতে না পারা

নিজের চাহিদাও জানেন, কিন্তু মুখ ফুটে বলতে পারছেন না নিজের ভালো লাগা না লাগার কথা। নারীদের যৌন জীবনে অতৃপ্ত থাকার অন্তরালে এটা একটি বিশেষ কারণ। এমনকি তিনি যে যৌন জীবনে সুখী নন এটাও পুরুষ সঙ্গীকে মুখ ফুটে বলতে পারেন না অনেক নারী।

এ বিষয়ে আরও পড়ুন   বীর্যপাত বন্ধ রেখে অধিক সময় সহবাস করার একমাত্র পদ্ধতি (ভিডিওসহ)

৫. যৌনতা নিয়ে ভয়

অনেক নারীর মাঝে যৌনতা বিষয়ে নানান রকমের ভীতি কাজ করে. ফলে এই বিষয়টি সম্পর্কে তারা কখনও সহজ মনোভাব পোষণ করতে পারেন না। চিরকাল বিষয়টি নিয়ে আড়ষ্টতা রয়ে যায়। জানতে পারেন নারীর বা সঙ্গিনীর সতীত্ব জানার উপায় ।

৬. শারীরিক এবং মানসিক সমস্যা নিয়ে সংকোচ

যৌনতায় আগ্রহ নেই কিংবা যৌনতা ঘিরে কোনো শারীরিক সমস্যা বোধ করছেন। এমন অবস্থায় ডাক্তারের কাছে যান না অধিকাংশ নারী। ফলে সামান্য একটু চিকিৎসার অভাবে তাদের যৌন জীবন রয়ে যায় বিভীষিকাময়।