জেনে নিন ব্যায়ামের সঠিক সময়

আপনারব্যায়ামের সঠিক সময় কোনটি তা নির্বাচন করতে হবে আপনার প্রতিদিনের কাজেররুটিন মাথায় রেখে। ভোরবেলা কিংবা দুপুরবেলা, বিকাল কিংবা সন্ধ্যা যে সময়ই ব্যায়াম করুন না কেন সময়ভেদে ব্যায়ামের ধরনে আসবে কিছু পরিবর্তন-
ভোরবেলা:

১) যেহেতু ব্যায়াম করার সময় শরীরে যথেষ্টপজিটিভ এনার্জি রাখতে হবেসেই সাথে মনঃসংযোগ করতে হবে, সে কারনে ভোরবেলা ঘুম থেকে উঠেই ব্যায়াম করা শুরু করবেন না

২) ঘুম থেকে ওঠার পর শরীরটাকে একটিভ হওয়ার জন্য অন্তত তিন ঘন্টা সময় দিনশরীরের এনার্জি লেভেল স্বাভাবিক অবস্থায় পৌছালে তবেই ব্যায়াম করা শুরু করবেন

৩) সময়ের অভাবে যদি ভোরবেলা ঘুম থেকে ওঠার আধ ঘন্টা পরই শরীরচর্চা করতে হয় তাহলে হালকা জগিং করতে পারেনহালকা করে ফ্রিহ্যান্ড এক্সারসাইজ ও হাঁটাচলা করতে পারেন

৪) ভোরবেলা ব্যায়াম করার পরিকল্পনা থাকলে আগের দিনের সব কাজ তাড়াতাড়ি শেষ করে সঠিক সময়ে ঘুমাতে যান৭ থেকে ৮ ঘন্টা ঘুমানোর পর নির্দিষ্ট সময় অপেক্ষা করে ব্যায়াম করা শুরু করতে পারেনযদি কোন দিন ঘুমাতে যেতে দেরি হয়ে যায় তবে ঘুম থেকে উঠেই আগের নিয়মের নির্দিষ্ট সময়ে ব্যায়াম শুরু করবেন নাএতে আপনার শরীরের উপর অতিরিক্ত চাপ পড়তে পারে
দিনের বেলা:
১) দিনের বেলা ঘুম থেকে উঠার ৬ ঘন্টা পর এবং ১২ ঘন্টার মধ্যের সময়টুকু সবচেয়ে উপযুক্ত ব্যায়ামের পক্ষেআপনি যদি সকাল ৮ টায় ঘুম থেকে উঠেন তবে দুপুর ২ টা থেকে রাত ৮ টার মধ্যে সময়টুকু ব্যায়াম করার উপযুক্ত সময়এ সময়ের মধ্যে যে কোন সময়কে বেছে নিতে পারেন আপনার প্রয়োজনীয় ব্যায়ামটুকু করতে
২) দুপুরের খাবার গ্রহনের পর কমপক্ষে দুই ঘন্টা পরে ব্যায়াম শুরু করতে পারেনএর আগে কখনোই ব্যায়াম করবেন নাআপনার শরীরের অবস্থা অনুযায়ী সময় নির্ধারন করাটা ভালোএজন্য কোন অভিঙ্গ ফিটনেস এক্সপার্টের পরামর্শ নিতে পারেন
৩) প্রতিদিন যদি আপনার রুটিনে দুই ঘন্টা ব্যায়াম করার সিডিউল বা ইচ্ছা থাকে তবে অবশ্যই সে সময়টুকু দিনের বেলা ফেলবেনভারী কোন ব্যায়াম করার ফলে শরীরের অনেক অঙ্গ প্রতঙ্গ প্রসারিত হয়ে থাকেএদের রিলাক্স করার জন্য বেশ সময়ের প্রয়োজনতাই দিনের যেকোন সময়কে বেছে নিতে পারেন
সন্ধ্যাবেলা:
১) অনেকে অফিস থেকে ফিরে আসেন এ সময়ে আবার অনেকে কিছুটা রাত করে ফেরেনবাসায় এসে ফ্রেস হয়ে একটু রেস্ট নিয়ে তবেই ব্যায়াম করা শুরু করতে পারেনশরীরের কোন রকম কান্তিভাব থাকলে ব্যায়াম শুরু করবেন নাশরীরের কান্তিভাব আপনার মনঃসংযোগ দিতে বাঁধা দিবেতাই হালকা কিছু খেয়ে নিয়ে কান্তিভাব দুর করে ফেলুন

২) সন্ধ্যাবেলা শরীরচর্চার জন্যযোগব্যায়াম খুবই উপযোগীএই ব্যায়াম গুলো ধীরে ধীরে করতে হয় বলে শরীরের উপর তেমন কোন চাপ পড়ে নাএছাড়াও ট্রেডমিল, সাইকিং ব্যবহার করেও ব্যায়াম করতে পারেননিজের পছন্দ অনুযায়ী গতি বাড়িয়ে নিতে পারেনআর একটি ব্যায়াম করতে পারেন তাহলো মেডিটেশন১৫ মিনিট নিরিবিলি পরিবেশে মেডিটেশন করলে আপনার মন ও শরীর দুটোই শান্ত হয়ে যাবে।              

জেনে রাখুন:
১) ব্যায়ামের সঠিক সময়ের সঙ্গে খাওয়ার সময়ের সঠিক ভারসাম্য না থাকলে ব্যায়ামের সুফল পাওয়া যাবে নাসময় অনুযায়ী ব্যায়ামের ধরনও ভিন্ন হবে সেক্ষেত্রে অবশ্যই রুটিন করে নিন

 

২) যদি কর্মব্যস্ততার কারনে সারাদিন কোনব্যায়ামই করা না হয় তাহলে সেটা আপনার শরীর ও মনের জন্য ভালো নয়তাই ব্যায়াম একদমই না করার চেয়ে কিছু সময় করাটা অনেক ভালোতাই সময়ের সল্পতা থাকলে অল্প সময়ের জন্য হলেও প্রতিদিন ব্যায়াম করুন

 

 

৩) ব্যায়াম করার পর শরীরের তাপমাত্রা, রক্ত চলাচল বেড়ে যায়এর ফলে শরীর অধিক কর্মক্ষম থাকে এবং শান্তভাব কেটে যায়তাই ঘুমাতে যাওয়ার ঠিক আগেই ব্যায়াম করা উচিত নয়ঘুমাতে যাওয়ার আগে কমপক্ষে ৩ ঘন্টা হাতে নিয়ে ব্যায়াম করে নিতে পারেন
 
সূত্র: ফিজিওনিউজ 24
এ বিষয়ে আরও পড়ুন   যৌন দুর্বলতা থেকে বাচতে যা কখনই করবেন না