লিঙ্গ লম্বা করার মেথড গুল আসলেই কি কাজ করে?

কিভাবে পেনিস এর মাপ নিতে হয় এবং কোন সাইজ স্বাভাবিক?

আপনার পেনিস বড় না ছোট তা ধরে নেবার আগে মাপ নেয়াটা খুবি গুরুত্বপূর্ণ। পেনিস এর গোঁড়া অর্থাৎ পেটের কাছথেকে পেনিস এর অগ্রভাগ পর্যন্ত উত্থিত অবস্থায় পেনিস এর যে মাপ, সেটাই আপনার পেনিস এর মাপ। এখন কত হলে এই পেনিস এর মাপ কে আপনি স্বাভাবিক বলবেন? আমাদের দেশের পুরুষ দের শারীরিক গঠন পশ্চিমাদের মত নয়। তাই ইন্টারনেট এ তাদের তথ্য পড়লে মন খারাপ হওয়াটাই স্বাভাবিক। আমাদের উপমহাদেরশের মানুষের শারীরিক কাঠামো অনুযায়ী উত্থিত অবস্থায় পাঁচ ইঞ্ছি থেকে ছয়  ইঞ্ছি হয়ে থাকে।

তাহলে কার ক্ষেত্রে পেনিস এনলারজমেন্ট প্রয়োজন হয়?
খুবি কম মানুষের এই এই প্রয়োজন হতে পারে। উত্থিত অবস্থায় তিন ইঞ্ছি এর কম আক্রিতির পেনিস কে মাইক্রো-পেনিস ডিসঅর্ডার বলা যেতে পারে। তবে প্রতি ১০০০ পুরুষ মানুষের মধ্যে মাত্র ছয় জনের এই সমস্যা হতে পারে। এছাড়া অন্য কারো জন্যই সাধারনত পেনিস এনলারজমেন্ট প্রয়োজন হয় না।

পেনিস এনলারজমেন্ট মেথড গুল আসলেই কি কাজ করে?

যখন আমরা খুঁজতে গেলাম যে পেনিস এনলারজমেন্ট মেথড গুলর পেছনে বৈজ্ঞানিক কোন প্রমান বা ব্যাখ্যা আছে কিনা, আমরা এমন কোন উৎস খুঁজে পাইনি যা কোন বৈজ্ঞানিক পদ্ধতি দারা পরিক্ষিত নিরাপদ পদ্ধতি। বেশিরভাগ ওয়েব সাইট এই রয়েছে তাদের পণ্য সম্পর্কে অতি মুল্লায়িত কথাবার্তা, অসমর্থিত তথ্য উপাত্ত, মিথ্যা প্রশংসা পত্র, এমনকি মিথ্যা ডাক্তারি প্রশংসা ও। যদি আসলেই এমন কোন পদ্ধতি থাকত, তাহলে আমরা তা জেনে যেতাম যেমনটা আমরা জানি ভায়াগ্রা সম্পর্কে যা লিঙ্গ উত্থানে সাহায্য করে।
এখন দেখি, বাজারে প্রচলিত পেনিস এনলারজমেন্ট মেথড গুল কি কি এবং এদের বিশ্লেষনঃ

সাধারন ব্যাবহার এর পিল, লোসন, ক্রিম, জেল ইত্যাদিঃ
সাধারনত এই সব পণ্য দাবি করে থাকে যে তাদের মধ্যে রয়েছে বিভিন্ন প্রাকৃতিক নির্যাশ, ভিটামিন, মিনারেল, হরমন ইত্যাদি যা পেনিস এর আকার বড় করে। বেশিরভাগ উৎপাদক এই বলতে চায় না যে তাদের পণ্য তে আসলে কি কি উপাদান আছে। আমাদের বিশ্বাস করে নিতে হয় যে যা বলা হচ্ছে তাই সত্যি কারণ আমরা আমাদের পেনিস এর আকার বড় করতে চাই এবং যে যা বলে তাই বিশ্বাস করি। যুক্তরাষ্ট্রের ম্যারিল্যান্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের এক গবেষণায় এই সকল পণ্য সমূহের মধ্যে ক্ষতিকর লেড, কীটনাশক, বিভিন্ন প্রাণীর মল পাওয়া গেছে।

বিভিন্ন যন্ত্র যেমন ভ্যাকুয়াম পাম্প, পেনিস স্ট্রেচার, রিং ইত্যাদির বিজ্ঞাপন আমরা ইন্টারনেট এ হরহামেশাই দেখে থাকি। ভ্যাকুয়াম পাম্প বাতাশ টেনে নিয়ে পেনিস এর ভেতর রক্ত ধরে রেখে পেনিস এর সাইজ বড় করে বলে দাবি করা হয়। তবে এই দাবির সপক্ষে কোন গবেষণালব্ধ যুক্তি নেই। অনেক সময় মানুষ এটা বেশি ব্যাবহার করে রক্ত নালি ছিরে যাওয়া থেকে শুরু করে লিঙ্গ পুরোপুরি ভাবে আর না উত্থিত ও হতে পারে। পেনিস স্ট্রেচার এর ক্ষেত্রে ও একি ঘটনা ঘটতে পারে।

এ বিষয়ে আরও পড়ুন   লাখ লাখ তরুণ ভুল ও অপ্রয়োজনীয় চিকিৎসার শিকার

ব্যাম যেমন দুধ দোয়ানোর মত করে অনেকে শিথিল লিঙ্গ কে বড় করার চেষ্টা করেন। অনেক ইন্টারনেট এর সাইট এ এই পদ্ধতি বর্ণনা করা হয়েছে। তবে এমন কোন প্রমান নেই যে এই ধরনের ব্যাম কোন কাজে আসে।
তবে যাদের কেবল মাইক্র-পেনিস (৩ ইঞ্ছি এর কম উত্থিত অবস্থায়) এর সমস্যা রয়েছে, অথবা কোন দুর্ঘটনার কারনে অথবা কোন রুপ অসামঞ্জস্যতা রয়েছে আদের ক্ষেত্রে সার্জারি করে সামান্য উপকার হতে পারে, তবে তাতে ও যে লিঙ্গের আকার খুব যে বেড়ে যাবে তা কিন্তু নয়। আবার এই সব সার্জারির কারনে স্বাভাবিক যৌন জীবন ব্যহত ও হতে পারে।
তাই, পেনিস এর আকার নিয়ে বেশি দুশ্চিন্তা না করে স্বাভাবিক ভাবে যা আছে তা নিয়েই সন্তুষ্ট থাকা ভাল। আর মনে রাখতে হবে, আনন্দদায়ক যৌন জীবন লিঙ্গের আকারের উপন নির্ভর করে না।