ফিল্মে দেখি পুরুষের লিঙ্গ অনেক লম্বা তারা অনেক সময় ধরে মিলন করে

সন্মানিত জনাব/জনাবা,

১. নায়ক তো সাধারন মানুষের মত হবেন না। তার আলাদা কিছু যোগ্যতা থাকে বলে তাকে ফিল্মে সুযোগ দেয়া হয়।

২. ব্লু-ফিল্মে কিছু বিশেষ এ্যাঙ্গেলে ক্যামেরা রেখে ছবি নেয়া হয়। ভিজ্যুয়াল/ দৃশ্যপটের ক্ষেত্রে দুইটি শব্দ প্রচলিতঃ
ক. এ্যভাব আই ল্যাভেল
খ. বিলো আই ল্যাভেল।
আপনি নিজের মোবাইল দিয়ে কোন বস্তু/ ব্যাক্তির ছবি তোলার সময় মাটিতে বসে তার দাড়ানো অবস্থার (এ্যভাব আই ল্যাভেল) ছবি তোলেন তাহলে ছবিতে ওই ব্যাক্তির আকার বাস্তবের তুলনায় অনেক বড় মনে হবে। ঠিক তারবিপরীত – একটি চেয়ারে দাড়িয়ে যদি মাটিতেদাড়ানো আপনার বন্ধুর ছবি তোলেন (বিলোআই ল্যাভেল) তাহলে তাকে অনেক খাটো দেখাবে।

আমরা সাধারনত আমাদের নিজের লিঙ্গ বিলো আই ল্যাভেলে দেখি তাই ভিজ্যুয়ালী এটি বাস্তবের তুলনায় ছোট দেখা যায়। এমনকি লিঙ্গের অনেকাংশ পেটের কারনে দেখাই যায়না!

পুরুষ যেমন কল্পনা করেন নারীর স্তন একদম গোলাকার টলমলে থাকবে, তেমনি নারীর মনেকল্পনাথাকে তার সঙ্গীর লিঙ্গ হবে ছবির হিরোদের মত! কিন্তু যখন সত্যিকারে মিলনে যায় তখন তারা আকার বিষয়টি খেয়ালই করেন না। তাছাড়া নারীর জি-স্পট তথা যৌন সুড়সুড়ির স্নায়ু যৌনাঙ্গের মাত্র তিন ইঞ্চি (লম্বা মেয়েদের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ পাঁচ ইঞ্চি) গভীরে অবস্থিত – তাই লিঙ্গ তিন ইঞ্চি ভিতরে প্রবেশ করলেই যৌনসুখ অর্জন করা সম্ভব।

৩. যারা মিডিয়া কিংবা ফটো এডিটের সাথে জড়িততারা জানেন – ৩০ সেকেন্ডের একটি বিজ্ঞাপন চিত্র বানাতে ৭ থেকে ১০ দিন সময় লেগে যায় (বাংলালিংকের একট চলতি এ্যাডে দেখবেন বাবা তার ফেল করা ছেলেকে বকা-ঝক!করছেন। শুধুমাত্র” রেজাল্ট কি?+ অনুবাদ কর, পুত্র ফেল করিয়া পিতার মুখে চুন-কালি মাখিলো”এই দুই লাইনের শুটিং করতে সময় লেগেছে একটানা চার দিন!

লক্ষ্য করবেন, আপনি নিজের একটি পাসফোর্ট সাইজের ফটো তুলতে ষ্টুডিওতে সর্বনিন্ম ৩/৪ টি স্নেপ নেয়। সেই হিসেবে ২০ মিনিটের একটা পর্নো ছবির শুটিং কত দিনে হতেপারে বলে আপনি মনে করেন? যদি ১৫ মিনিটের ছবি ১৫ মিনিটে শুটিং হত তাহলে প্রতি মাসে ফিল্ম রিলিজ হত ৫০০-১০০০! আসলে একেকটি ছবি লম্বা সময়+ বার বার মিলনকে জোড়া লাগিয়ে একটি মিলন পর্ব হিসেবে দর্শকের সামনে উপস্থাপন করা হয়।

এ বিষয়ে আরও পড়ুন   ইসলামে স্ত্রী সাথে সহবাসের কিছু গুরুত্বপূর্ণ আদব

টিপসঃ
পুরুষঃ মিলনকালে মাত্র শতকরা১৭ভাগ নারী পুর্ন তৃপ্তি (উন্নত বিশ্বে একযুগ আগে তা ছিল২৫%, যা বর্তমানে ৪৫% এ এসে দাড়িয়েঁছে) প্রাপ্ত হন। তাই মিলন-পুর্ব-সিঙার (ফোর-প্লে) এর জন্য বেশি সময়ব্যয় করুন।

নারীঃ এলোমেলো চিন্তা বাদ দিয়ে বাস্তবতা মানুন। নারীদের বলছি – আপনার একটি কথা আপনার পুরুষ সঙ্গীকে”বাঘ” বানিয়ে দিতে পারে। তার শরীরে জোয়ার জাগাতে পারে। তার সুনাম করুন – তাকে মনোবল দিন; নিজেই বিছানায় (এবং পারিবারিক জীবনে) লাভবান হবেন। তাকে হারাতে চেষ্টা করবেন তো নিজেই শুন্যতায় ভুগবেন।